করোনায় নিরীহ ফিলিস্তিনিদের চিকিৎসায়ও বাধা দিচ্ছে ইসরাইল

নিউজ নিউজ

ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:১৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৯, ২০২০

বৈশ্বিক প্রাণঘাতী মহামারি করোনাভাইরাস পুরো বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। করোনার এ প্রাদুর্ভাবের সময়ও দখলদার ইসরাইল ফিলিস্তিনের নিরিহ জনগণের ওপর তাদের হিংসাত্মক মনোভাব পরিবর্তন করেনি। এ বিপর্যয় পরিস্থিতির সময়ে ফিলিস্তিনিরে চিকিৎসা নিতেও বাঁধা দিচ্ছে ইসরাইল।

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া কোভিড-১৯ এর দাপটে বিশ্বের ব্যাপক ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলোর বেসামাল অবস্থা। এশিয়া,ইউরোপ, আমেরিকা কিংবা আফ্রিকা মহামারি করোনার আক্রমণ থেকে কেউ বাদ নেই। দখলদার ইসরাইলও ব্যাপকভাবে করোনায় আক্রান্ত। ভয়াবহ সময় পার করছে তারা। খবর মিডল ইস্ট আই।

বৈশ্বিক মহামারি করোনা এবং নিজেদের চরম বিপর্যয় ও সঙ্কটের মুখেও নিরীহ ফিলিস্তিনিদের প্রতি নিপীড়ন কমায়নি ইসরাইল। দেশটি চূড়ান্ত অমানবিকতার পরিচয় দিয়ে ফিলিস্তিনের করোনায় চিকিৎসা গ্রহণে বাধা দিচ্ছে ইসরাইলি সেনারা।

ফিলিস্তিনের জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে পাঠানো করোনা টেস্টিং কিট এবং পার্সোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই) আটকে দিচ্ছে ইসরাইলি সেনারা। ফিলিস্তিনের বিভিন্ন হাসপাতালে গিয়েও চিকিৎসায় বাধা দিচ্ছে তারা। ভেন্টিলেটরসহ বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জামাদি ছিনিয়ে নিচ্ছে তারা।

এ ছাড়াও ইসরাইলে বসবাসরত ফিলিস্তিনি নাগরিকরাও পাচ্ছে না যথাযথ চিকিৎসা সেবা। তাদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে নানা বৈষম্য করছে। করোনা টেস্টের জন্য ৬ হাজার আবেদনের বিপরীতে মাত্র ৪৮ জনের টেস্ট করেছে ইসরাইল। প্রচণ্ড স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে অবস্থান করছে এসব নিরীহ ফিলিস্তিনি মুসলিম নাগরিক।

করোনা চিকিৎসায় ইসরাইলি হস্তক্ষেপের কারণে ফিলিস্তিনিদের হোম কোয়ারেন্টাইন ছাড়া অন্যসব চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত তারা। বর্তমানে ইসরাইলি সেনাদের চিকিৎসায় বাধা প্রধানের এ সময়ে স্বেচ্ছা হোম কোয়ারেন্টাইনই তাদের শেষ ভরসা।

এখন পর্যন্ত ফিলিস্তিনে সর্বমোট করোনায় আক্রান্ত রোগী শানাক্ত হয়েছে ২৬৩জন। এর মধ্যে ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরেই প্রায় আড়াইশ আক্রান্ত আর বাকি অল্প কিছুসংখ্যক গাজার বাসিন্দা। এদের মধ্যে মারা গেছে ১ জন। সুস্থ হয়েছে ৪৪জন।

আপনার মতামত দিন :