আজ (৮ সেপ্টেম্বর) বিশ্ব ফিজিওথেরাপি দিবস

নিউজ নিউজ

ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২০

বিশ্বের ১২১টি দেশে একযোগে এই দিনে ফিজিওথেরাপি দিবস পালন করা হয়। প্রতিটি দেশে এবার ২৪ তম বিশ্ব ফিজিওথেরাপি দিবস পালিত হচ্ছে।

১৯৫১ সালের ৮ সেপ্টেম্বরে ‘ওয়ার্ল্ড কনফেডারেশন ফর ফিজিকাল থেরাপি’ তাদের যাত্রা শুরু করে। ধীরে ধীরে তা আন্তর্জাতিক বিস্তৃতি লাভ করে এবং বিভিন্ন দেশে তাদের সদস্য হিসেবে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকদের সমন্বয়ে গঠিত সংস্থার পাশে থেকে পেশার উন্নয়নে সক্রিয় হয়ে আছে।

১৯৯৬ সালে ওয়ার্ল্ড কনফেডারেশন ফর ফিজিকাল থেরাপি ৮ সেপ্টেম্বরকে বিশ্ব ফিজিওথেরাপি দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। বাংলাদেশ ফিজিওথেরাপি অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএ) ২০০৭ সাল থেকে প্রতিবছর এ দিবসটি পালন করে আসছে।

গত বছর ওয়ার্ল্ড কনফেডারেশন ফর ফিজিক্যাল থেরাপি তাদের নাম পরিবর্তন করে ‘ওয়ার্ল্ড ফিজিওথেরাপি’ নামকরণ করে। ওয়ার্ল্ড ফিজিওথেরাপি একটি বিশ্বব্যাপী সংস্থা এবং এটি আন্তর্জাতিক স্তরে সদস্য সংস্থাগুলোর সাথে সহযোগিতা করে পেশার উন্নয়নে পরামর্শ দিয়ে থাকে। এ সংস্থার মূল লক্ষ্য হলো সবার জন্য সাশ্রয়ী মূল্যের সর্বাধিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা, বৈজ্ঞানিক প্রমাণ ভিত্তিক ফিজিওথেরাপি অনুশীলন প্রচার ও সমর্থন করা, এবং ফিজিওথেরাপি শিক্ষার সর্বোচ্চ সম্ভাব্য মান বিকাশ এবং বিতরণ করা।

২০২০ সালে ফিজিওথেরাপি দিবসের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে কোভিড-১৯ পরবর্তী পুনর্বাসন চিকিৎসা এবং কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসা ও ব্যবস্থাপনায় ফিজিওথেরাপিস্টদের ভূমিকা।

কোভিড-১৯ থেকে মুক্তি পেতে বা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা এবং ফিজিওথেরাপিস্টদের প্রদত্ত এক্সারসাইজ অনন্য ভূমিকা পালন করে।

এক্সারসাইজের মাধ্যমে কীভাবে একজন কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তি আরোগ্য পেতে পারেন সে সম্পর্কে শরীরে অঙ্গসঞ্চালন বিশেষজ্ঞ হিসেবে ফিজিওথেরাপিস্টরা দিক নির্দেশনা দিয়ে সহায়তা করতে পারেন।

আবার কোভিড-১৯ রোগে গুরুতর আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসার পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া থেকে পরিত্রাণ পেতে পুনর্বাসন এবং ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা সেবা প্রয়োজন।

আপনার মতামত দিন :